ই কমার্স /ড্রপ শিপিং বাজেট

ই কমার্স /ড্রপ শিপিং বাজেট –

আপনার বাজেট কত হওয়া উচিত ? ( আলি ড্রপশিপ )

আসসালামু আলাইকুম

প্রথমেই বলে নিচ্ছি এই টপিকে অনেক বিষয় আপেক্ষিক । স্থান ,কাল ,পাত্র ভেদে কম বেশি হতে পারে।

অনেকেই ধীর্ঘদিন ধরে স্টাডি করছেন বা সাইট লঞ্চ করার জন্য প্রিপারেশন নিচ্ছেন।

তাদের পরবর্তী প্রশ্ন যেটা হয় যে, সাইট শুরুর জন্য বাজেট কত হওয়া উচিত ?

এখানে আমি একটি আইডীয়াল/আপেক্ষিক বাজেট দিচ্ছি ।

শপিফাই/ওয়ার্ডপ্রেস -আলিএক্সপ্রেস/চায়না /অন্যান্য – ড্রপশিপিং মডেল

আনুমানিক খরচ সমূহ —

১। ওয়েব সাইট ডেভেলপমেন্ট –

যদি আপনি শপিফাই তে স্টোর করেন । তাহলে আপনাকে প্রতি মাসে চার্জ দিতে হবে। আর ব্যাসিক অপ্টিমাইজেশন এর জন্য ১০০-২০০ ডলার বাজেট রাখতে পারেন।

ওয়ার্ডপ্রেস- ওয়ার্ডপ্রেস ইকমার্স সাইট এর জন্য ২০০-৫০০/১০০০ ডলার ও বাজেট হতে পারে। কাজকে সহজ করার জন্য কিছু পেইড প্লাগিন কিনতে পাওয়া যায়। যেমন আলি ড্রপশিপ।

নোট- আপনার যদি এই রিলেটেড জ্ঞান থাকে অথবা ইউটিউব দেখেও সেট করতে ট্রাই করতে পারেন। তাহলে খরচ শুন্য।

সতর্ক বার্তা- আপনি যদি নুন্যতম ৬ মাস শপিফাই স্টোর বিনা লাভে কন্টিনিউ না করতে পারেন। আপনি ধরে নিতে পারেন আপনি এখন ও এই ইন্ডাস্ট্রিতে জয়েন করার আর্থিক সক্ষমতা অর্জন করেন নাই। আরো সময় নিন।

২। এড বাজেট – যেহেতু আপনার টা ব্রান্ডেবল সাইট ।তাই প্রমোশন আপনার নিজেকে করতে হবে। আপনি যদি ফ্রি ট্রাফিক এক্সপার্ট হন । তাহলে ত কোন কথা নাই। তবে ৯০% স্টোর পেইড ফেসবুক এবং গুগল শপিং এড, ইন্সট্রাগ্রাম এবং রেডিট মার্কেটিং করে থাকেন। আপনার প্রতিটা প্রোডাক্ট টেস্ট করার জন্য অন্তত ১০০-১৫০ ডলার এড বাজেট থাকা উচিত ,৫০০ ডলার রিকমেন্ডেড। আমি ধরে নিচ্ছি আপনি প্রোডাক্ট রিসার্চে কোন ভুল করেন নাই।

৩। প্রোডাক্ট কস্ট- বেশির ভাগ ড্রপ শিপার ভাবে যে সে কাস্টমার এর টাকা দিয়ে প্রোডাক্ট কিনে লাভ টা রেখে দিবে । আহ কত মজা। যদি আপনার কনসেপ্ট এইটা হয় । আপনি এখন ও নাদান বাচ্চা রয়ে গেছেন। আপনার কাস্টমার অর্ডার করার ৩৮-৭২ ঘন্টার মধ্যে অবশ্যই আপনাকে প্রোডাক্ট অর্ডার করতে হবে । আপনি যে গেটওয়েই ইউজ করেন না কেন । তারা আপনাকে কোন ভাবেই এত দ্রুত পেমেন্ট রিলিজ করবে না। (শুধুমাত্র পুরাতন পেপেল একাউন্ট এর ক্ষেত্রে ভিন্নতা আছে।

অন্যদিকে আপনার সাপ্লাইয়ার যদি আলি থেকে হয় , আপনাকে পেমেন্ট করতে হবে অন্য মাধ্যমে । তাই আপনার প্রোডাক্ট এর যে বায়িং প্রাইস, নুন্যতম ১০-৫০ ইউনিট প্রোডাক্ট ক্রয়ের টাকা হাতে রাখুন । আপনার সেল ভলিউম বেশি হলে আরো বেশি।মনে রাখবেন স্টোর এর প্রথম দিকে যদি কাস্টমার সাথে ঝামেলা হয় । আপনার এই স্টোর কে উপরে তোলা কস্টকর হয়ে যাবে।

টিপস- স্টোরের প্রথম দিকে সেল একটু স্লো রাখবেন । তাহলে ইনভেস্টমেন্ট কম লাগবে । যখন কাস্টমারের টাকা হাতে আশা শুরু হবে । তখন স্কেল করতে পারেন।

৪। গেটওয়ে – এইটা সম্ভবত সব চাইতে চ্যালেঞ্জিং যায়গা । এবং এইটা নিয়ে দেশকে দোষ দিয়ে লাভ নেই🤐। গেট ওয়ে হিসেবে সব চাইতে পপুলার হল পেপেল ও স্ট্রাইপ । যেটার কোন টাই আমাদের দেশে নাই😒🙄 । তবে বেশি দুঃখিত হওয়ার কিছু নাই । আপনি একাই হতভাগা নন । পেপেল নাই এই রকম দেশের সংখ্যা ২৪ টি । আরো বড় হতভাগা কিছু দেশ আছে। যেখানে পেপেল আছে কিন্তু রিসিভিং ডিসাবল। মানে কারো থেকে পেমেন্ট রিসিভ করতে পারবে না এই রকম দেশের সংখ্যা ৮৫ টি । তার মানে পেপাল দিয়ে বিজনেস করতে পারবে না এই রকম হতভাগ্য দেশের সংখ্যা ১০৯ ।

আর স্ট্রাইপ মাত্র ৩৪ টি দেশে তাদের কার্যক্রম চালাচ্ছে । তবে স্ট্রাইপ ছাড়াও আরো অনেক কোম্পানি আছে। তবে সে গুলো ও বাংলাদেশী একসেপটেন্স নাই।

তবে কি আমরা থেমে যাবে।
অবশ্যই না -where there’s a will there’s a way.

কিভাবে গেটওয়ে সলিউশন করব –

✔️ক্রেডিট কার্ড প্রসেসিং এর জন্য প্রথমে 2CO তে ট্রাই করুন। এক্সেপ্টেন্স রেট-১০% বা তার কম। পয়েন্ট টু বি নোটেড- বাংলাদেশি কোন গেটওয়ে গ্লোবাল ইকমার্স সাপোর্ট করে কিনা আমার জানা নাই।

✔️পরিচিত কেউ এক্সেপ্টেড কান্ট্রিতে থাকলে তার সাহায্য নিতে পারেন।অথবা পার্টনারশিপ করতে পারেন। এক্ষেত্রে তার সাথে অবশ্যই বিজনেস এর টার্মস এবং প্রফিট শেয়ার কিভাবে করবেন ,করলে কত টুকু ইত্যাদি ক্লিয়ার করে নেন। অবশ্যই হাই ট্যাক্স কান্ট্রি যেমন অস্ট্রলিয়া ,ফ্রান্স এবং ইউরোপিয়ান আরো কিছু দেশিয় পার্সোনাল একাউন্ট এড়িয়ে চলা উচিত। কারন ঐ গুলোতে ট্যাক্স রেট বেশি। যেটা হয়তবা আপনি দিতে চাইবেন না।

✔️এই নিয়ে আমাদের একটি সার্ভিস আছে । লাস্ট অপশন হিসেবে নিতে পারেন।আপনার যদি স্টোর কে আগামি ৩-৬ মাসের মধ্যে ৫ হাজার ডলার সেল আনার মত প্ল্যান ,অর্থ ইত্যাদি থাকে । তাহলেই এই রাস্তায় আসবেন । অন্যথা দূরে থাকুন।কারন খরচ প্রায় ৫৫০-৫৮০ ডলার ।

৯০% গ্লোবাল এন্টারপ্রেনার যাদের দেশে ফ্যাসিলিটি নেই। তারা কোন না কোন ভাবে এইটা ম্যানেজ করতেছেন। এই জাতীয় কোন সলিউশন ঈ

সতর্ক বার্তা –

❌স্টেলথ /ফেক পেপেল দিয়ে ড্রপ শিপিং সাইট লঞ্চ করবেন না। কারন একবার ডোমেইন ব্লাক লিস্টেড হলে তখন লিগ্যাল পেপেল ও আবার লিমিট করবে।

❌১০০-৩০০ ডলার দিয়ে যে স্ট্রাইপ একাউন্ট গুলো বিক্রি হয় । ভূলেও কিনতে যাবেন না। কেন এই কথা বললাম কিনে ধরা খাওয়ার পর আশা করি বুঝতে পারবেন।

পরবর্তি পোস্ট- ইবে বা ইটসি/নিজস্ব প্রিন্ট অন ডিমান্ড সাইট এর বাজেট।

পোস্টে কোন ভুল হলে ক্ষমা করবেন এবং সঠিক তথ্য দিয়ে সাহায্য করুন । আমি আপডেট করে দিব।

ধন্যবাদ

Post Credit: Abdullah Al Mamun

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *